ঢাকা, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫

গরিব ও মধ্যবিত্তদের ভরসা ফুটপাত

প্রকাশনার সময়: ১১ জুন ২০২৪, ১৯:৫০

ঈদকে সামনে রেখে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ফুটপাতের ভ্রাম্যমাণ দোকানগুলোতে জমে উঠছে কেনাবেচা। এসব দোকানে নিম্নবিত্ত থেকে মধ্যবিত্ত মানুষও ভিড় করছেন।

মঙ্গলবার (১১ জুন) উপজেলার পল্লিবিদুৎ, সফিপুর ও চন্দ্রায় ফুটপাতের অস্থায়ী দোকানগুলোতে মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।

বিক্রেতাদের হাঁকডাক ও ক্রেতা-বিক্রেতার দরদামে বেচাবিক্রি জমে উঠেছে। নিম্নআয়ের মানুষের পাশাপাশি অনেক নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত লোকজনও এসব দোকানে কেনাকাটার জন্য আসছেন। কম বাজেটের মধ্যে ক্রেতাদের পছন্দ হয় এমন বাহারি নকশা ও রঙের সব পোশাকের সংগ্রহ রয়েছে ফুটপাতের দোকানেও। তাই ক্রেতাদের কোনো না কোনো জিনিস পছন্দ হচ্ছে আর কিনেও নিচ্ছেন।

অস্থায়ী দোকানগুলোতে কেউ চৌকি পেতে, কেউবা ভ্যানের ওপর, কেউ হ্যাঙ্গারে ঝুলিয়ে, আবার কেউ চাদর বিছিয়ে বিভিন্ন ডিজাইনের পোশাকের সঙ্গে প্রসাধনী সামগ্রী সাজিয়ে রেখেছেন। ফুটপাতের দোকানগুলোতে পাওয়া যাচ্ছে প্যান্ট, শার্ট, টিশার্ট, পাঞ্জাবি, মেয়েদের বিভিন্ন পোশাক সহ বাচ্চাদের জামা-কাপড়।

ভ্রাম্যমাণ এসব দোকান ঘুরে দেখা গেছে, প্যান্ট ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা, পাঞ্জাবি ৪৫০ থেকে ৬০০ টাকা, শার্ট ১৫০ থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়া বিভিন্ন ধরনের টিশার্ট ১০০ থেকে ৩০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। আর বাচ্চাদের পাঞ্জাবি থেকে শুরু করে শার্ট, টিশার্ট, জিন্স, প্যান্ট ও জুতা পাওয়া যাচ্ছে। এসব পণ্য ৫০ থেকে শুরু ৫০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে।

কালিয়াকৈরে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন তালেব। তিনি বলেন, সন্তানের জন্য নতুন জামা ও নিজের জন্য জোড়া জুতা কিনতে এসেছি। কয়েকটা দোকান দেখছি, তবে আগের চেয়ে দাম বেশি চাচ্ছে।

পল্লী বিদুৎ ফুটপাতে বাচ্চাদের জন্য কেনাকাটা করছিলেন ফিরোজ। তিনি বলেন, গত ঈদে গ্রামের বাড়িতে যাইনি। এবার গ্রামের বাড়িতে ঈদ করব। দুই মেয়ের জন্য কিছু কেনাকাটা করছি। ফুটপাতে ভালো জিনিসও আছে। আর কম দামে পাওয়া যায়।

আমির হোসেন নামের এক ব্যবসায়ী জানান, কিছুদিন আগে বেচাবিক্রি কম থাকলেও ঈদকে সামনে রেখে এখন বেশ বেড়েছে। ঈদের জন্য অনেক কালেকশন বাড়াইছি। আশা করি ভালো দামে বিক্রি হবে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, নিম্নবিত্ত থেকে মধ্যবিত্ত লোকজনও তাদের দোকানে কেনাকাটার জন্য আসছেন। ঈদের কেনাকাটা শুরু হলেও সেই অর্থে ছুটির দিন ছাড়া বিক্রি কম। তবুও মোটামুটি ভালো বেচাবিক্রি হচ্ছে।

নয়া শতাব্দী/এসআর

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ