ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৩ শাবান ১৪৪৫

দিনাজপুরে বেড়েছে ছিনতাই চক্রের দৌরাত্ম্য

প্রকাশনার সময়: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৫১

দিনাজপুরের ষষ্টিতলা মোড় থেকে রেলওয়ে স্টেশন রোড হয়ে পৌরসভা মোড়, বাংলা স্কুল মোড় থেকে কলেজিয়েট মহিলা কলেজ মোড়, সুইহারি কলেজ মোড় থেকে ১০ মাইল রোড, রানিগঞ্জ মোড় থেকে চাঁদগঞ্জ, আনসার ক্লাব বটতলী থেকে গোপালগঞ্জ ও পল্লীবিদ্যুৎ পাঁচ মাইল মোড় এলাকায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে ছিনতাইকারী চক্র।

ছিনতাইয়ে ধরন- ছিনতাইকারীরা ৩ জন করে একটি মোটরসাইকেলযোগে ঘুরে বেড়ায়। একজন চালায় আর বাকি দুজন ওঁতপেতে থাকে এবং অটোরিকশা যাত্রীদের মূল্যবান জিনিসপত্র, ভ্যানিটি ব্যাগ, হাতে থাকা মোবাইলফোন বুঝে ওঠার আগেই কেড়ে নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়।

আবার চলতি অটোরিকশা থামিয়ে দেশীয় অস্ত্র দেখিয়ে সর্বস্ব লুটে নিচ্ছে চিহ্নিত ছিনতাইকারীরা। আর এসবই হচ্ছে প্রকাশ্য দিবালোকেই। কেউ দেখলেও প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না। এ রকম ঘটনা প্রতি দিন ও রাতে ঘটেই চলেছে হর-হামেশা।

ছিনতাইকারীর কবলে পড়া দিনাজপুর বোচাগঞ্জ উপজেলার ডহরা গ্রামের বাসিন্দা মৃত শফি উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন এ প্রতিনিধিকে জানান, দিনাজপুর ষষ্টিতলার নিশি আক্তারের বাড়ির ভাড়াটিয়া তিনি। বর্তমানে আরএইচকে ট্রেনিং সাপ্লায়ার কোম্পানিতে রংপুর বিভাগের এরিয়া সেলস ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত।

দেলোয়ার হোসেন বলেন, গত ৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যার দিকে রেলওয়ে স্টেশনের পশ্চিম গেট (কাচারি রেলঘুণ্টি) থেকে অটোরিকশাযোগে বাস টার্মিনালে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হন। টার্মিনাল যাওয়ার পথে মিশন রোড এলাকার বদর উদ্দিনের ছেলে মো. শেরু অজ্ঞাতনামা এক সহযোগীসহ তার অটোরিকশা থামিয়ে ফুলবাড়ী বাসস্ট্যান্ড যাবে বলে ওঠেন। অটোরিকশাটি দিনাজপুর পৌরসভা কার্যালয়ের সামনে পৌঁছালে শেরু ও তার সহযোগী জিলা স্কুলের পেছন দিকের নির্জন রাস্তা দিয়ে যাওয়ার জন্য চালককে চাপ দেয়। তখন তাদের আচরণ সন্দেহজনক মনে হলে চালককে ভাড়া বাবদ দশ টাকা দিয়ে অটো থেকে নেমে যেতে চাইলে, আমাকে জোরপূর্বক তাদের সেই নির্জন রাস্তা দিয়ে যাওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এসময় অটো থেকে নামার চেষ্টা করলে, শার্টের কলার চেপে ধরে, দুপাশ থেকে দুজন পেটে চাকু ঠেকিয়ে চুপচাপ বসে থাকতে বলে। চিৎকার করলে এখানেই জীবন শেষ করে দেবে বলে হত্যার হুমকিও দেয়।

চালকও এসময় নিরুপায় হয়ে তাদের কথামতো ষষ্টিতলার মোড়ের দিকে যায়। পথে রেলওয়ে স্টেশন পশ্চিম গেটে আসলে লোকজন দেখে বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করেন দেলোয়ার হোসেন। সেইসঙ্গে চালক থামার সঙ্গে সঙ্গেই অটোরিকশা থেকে নেমে পড়েন তিনি। এসময় আশপাশের দোকানিরা এগিয়ে আসলে, ছিনতাইকারীরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে দিনাজপুর কোতোয়ালী থানায় একটি অভিযোগও দাখিল করেন তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ফরিদ হাসান এ প্রতিনিধিকে জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নয়াশতাব্দী/এনএস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ

x
Naya Shatabdi