সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

‘তামিমের জাতীয় দলে ফেরা উচিত হবে না’

প্রকাশনার সময়: ১৫ মে ২০২৪, ১৮:১৫

২০২৩ সালে অনুষ্ঠিত আফগানিস্তান সিরিজের মাঝপথেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন তামিম ইকবাল। অভিমানী তামিমকে দলে ফেরাতে সেসময় গণভবনে ঢেকে নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবন থেকে বের হয়ে তামিম জানান, এক মাস পর ফিরবেন। কিন্তু আর ফেরা হয়ে ওঠেনি তামিমের।

মঙ্গলবার (১৪ মে) টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন বিসিবির প্রধান নির্বাচক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু। যেখানে নেই তামিম ইকবালের নাম, না থাকাটায় তো স্বাভাবিক। কারণ, অনেক আগেই টি-টোয়েন্টি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন বাঁহাতি এ ব্যাটার।

তবে ওয়ানডে ও টেস্টে কবে দেশের জার্সিতে তামিম ফিরবেন, আসলেও ফিরবেন কিনা- এই প্রশ্নর উত্তর জানা নেই বিসিবির। তবে তামিম যেভাবে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছেন, এরপর তার দলে ফেরা ঠিক হবে না বলে মনে করেন তামিমের সাবেক সতীর্থ ইমরুল কায়েস।

জাতীয় দলে তামিম ইকবালের দলে ফেরা প্রসঙ্গে ইমরুল কায়েস বলেন, ‘আমি তামিমের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কথা বলেছি। ও আসলে জাতীয় দলের ড্রেসিংরুম উপভোগ করছে না। কারণ, সে ড্রেসিংরুমে আগের মতো শ্রদ্ধা পাচ্ছে না। সে যতদিন ক্রিকেট খেলেছে, ডমিনেট করে খেলেছে। নিজের লেভেলটা একটা জায়গায় রেখেছিল। ওখান থেকে অবসর নিল, আবার ফিরেও এলো। আসলে ফিরে আসার পর মানুষ খুব ভালোভাবে নেয় না।’

সাবেক এ তারকা আরও বলেন- এখন হয়তো মিডিয়া, বোর্ড অনেকেই তামিমকে দলে নিতে চাচ্ছে। তামিম হয়তোবা আবেগ দিয়ে চিন্তা করে বলছে, ‘আমি হয়তো একটা ফরম্যাট খেলতে পারি।’ আমার মনে হয়, তার আর জাতীয় দলে ফেরত আসাটা উচিত হবে না।

গত কয়েক মাস ধরে ক্রিকেটের বড় বড় দলগুলো যখন বিশ্বকাপের স্কোয়াড তৈরি করতে ব্যস্ত সময় পার করেছে, তখন টাইগার ক্রিকেটে আলোচনার শিরোনামে ছিলেন তামিম ইকবাল। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়ে দলে ফিরছেন এই ড্যাশিং ওপেনার- এমন খবরও প্রকাশ হয়েছিল গণমাধ্যমে। কিন্তু সদ্য ঘোষিত স্কোয়াডে তাকে রাখা হয়নি।

নয়াশতাব্দী/এসআর

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ