ঢাকা, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫

ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৪ ঘর ভস্মীভূত 

প্রকাশনার সময়: ২৬ মে ২০২৪, ১৪:২৯ | আপডেট: ২৬ মে ২০২৪, ১৪:৩৫

পটুয়াখালীর দশমিনায় আগুনে চারটি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। শনিবার (২৫ মে) রাত সাড়ে ৯টার দিকে উত্তর রণগোপালদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় চারটি ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ফায়ারসার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সরা দুই ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রনগোপালদী ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের কাজী বাড়িতে রাত ৯টার দিকে আগুন লাগে। জাকির কাজির ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত সৃষ্টি হয়। ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর প্রভাবে সন্ধ্যার পর থেকে বাতাসের তীব্রতা ও গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি প্রবাহমান। আগুন লাগলে বাতাসের কারণে মিনিটে দ্রুত ছড়িয়ে পরে। স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলেও তারা ব্যর্থ হয়ে পরে দশমিনা ফায়ারসার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর সদস্যরা ঘটনা স্থলে গিয়ে দুই ঘন্টা চেষ্টারপর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনের তীব্রতায় একই বাড়ির চারটি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ১০লাখ টাকা।

ক্ষতিগ্রস্ত কালাম কাজী বলেন, বৈরি আবহাওয়ার কারণে আমরা ঘরের মধ্যে ছিলাম। হঠাৎ একটি শব্দ হয় দৌড়ে গিয়ে দেখি আগুন লাগছে পড়ে নিবাতে গেলে মুহূর্তের আগুন ছড়িয়ে পড়ে। মনে হয়, বৈরি আবহাওয়ার কারণে বিদ্যুৎ আসা যাওয়ার করলে লাইনে ত্রুটি থাকায় মিটার বাস্ট হয়ে আগুন লাগে। প্রথমে এলাকার লোকজন ও পরে ফায়ারসার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর সদস্যরা দুই ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তখন বাড়ির চারটি ঘর পুরে ছাই হয়ে যায়। ঘরের কোন মালামাল রক্ষা করতে পারিনি।

ফায়ারসার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর অধিনায়ক আনোয়ার হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করি। বৈরি আবহাওয়ার কারণে বাতাসের গতিবেগ বেশি থাকায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সময় লাগে। ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট এর কারনে আগুনের সূত্রপাত। চারটি ঘর পুড়েছে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রাথমিকভাবে বলা যায় ৭- ৮ লাখ টাকা।

নয়াশতাব্দী/এনএইচ

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ