ঢাকা, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

টঙ্গীতে বসতবাড়িতে হামলা, নারী-বৃদ্ধসহ আহত ৪

প্রকাশনার সময়: ১৫ মে ২০২৪, ২১:১৪

গাজীপুরের টঙ্গীতে বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় নারীসহ চারজন আহত হয়েছেন।

গত ১৩ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে টঙ্গীর বনমালা এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা সিরাজ মোল্লার বাড়িতে ঘটনা ঘটে। এঘটনায় ১৪ মে (মঙ্গলবার) রাতে টঙ্গী পূর্ব থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী পরিবার।

আহতরা হলেন, টঙ্গীর বনমালা এলাকার মৃত জৈনদ্দিন মোল্লার ছেলে সিরাজ মোল্লা (৭৫), সিরাজ মোল্লার বড় মেয়ে রিনা বেগম (৪৩), রিনা বেগমের স্বামী শরীফ হোসেন (৫০) ও সিরাজ মোল্লার মেঝো মেয়ে রুনা বেগম (৩২)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, টঙ্গীর বনমালা এলাকার স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ফরহাদ মোল্লা, তার পিতা আনসার মোল্লা ও ভাই রনি মোল্লাসহ আরও ১৫/২০ জন সন্ত্রাসী বাঁশের লাঠি, লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে লুটপাট ও ক্ষতিসাধনের লক্ষ্যে সিরাজ মোল্লার বাড়িতে আতর্কিত হামলা চালায়। এসময় বাড়ির প্রধান লোহার গেট ভাঙচুরের সময় সিরাজ মোল্লা বাধা দিলে আনসার মোল্লা ও তাদের সাথে থাকা সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্যরা হামলা করে। সিরাজ মোল্লাকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে তার বড় মেয়ে রিনা বেগম, রিনা বেগমের স্বামী শরিফ হোসেন ও মেঝো মেয়ে রুনা বেগম গুরুতর আহত হোন। পরবর্তীতে রুনা বেগমের স্বামী বাসায় এসে আহতদের চিকিৎসার জন্য শহীদ আহসান উল্লাহ মাষ্টার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করায়।

ভুক্তভোগী সিরাজ উদ্দিন মোল্লা বলেন, আনসার মোল্লা ও তার দুই ছেলে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাস। রাজনীতিকে হাতিয়ার বানিয়ে তারা এলাকায় বিভিন্ন অপকর্ম করে। আমার ছেলে জীবিত অবস্থায় এরাই ছলেবলে আমার ছেলের অর্থ আত্মসাৎ করেছে। এখন আমার ছেলে মারা যাওয়ার পর থেকে আমাদের সবকিছু ছিনিয়ে নিতে এই হামলা চালিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, হামলাকারী দল আমার মেয়েদের উপর চড়াও হলে আমি তাদের পায়ে ধরে আকুতি মিনতি করায় প্রাণ ভিক্ষা দিয়ে ঘরের গুরুত্বপূর্ণ কাগজ, সম্পত্তির দলিল, নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকারসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ জিনিস লুটপাট করে নিয়ে যায়। আমি আইনের কাছে উপযুক্ত বিচার চাই।

সিরাজ মোল্লার মেয়ে রুনা বেগম বলেন, আমার বৃদ্ধ বাবা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ করায় আনসার মোল্লা সহ তাদের সন্ত্রাসী বাহিনী আমার বাবাকে বেধড়ক মারধর শুরু করলে আমি আমার বাবাকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে তারা আমার উপর চড়াও হয় এবং শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। আমাকে ও পরিবারের অন্য সদস্যদের বাঁচাতে বাবা আকুতি করলে তারা লুটপাট করে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে চলে যায়।

টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, এঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নয়া শতাব্দী/এসআর

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ