ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৩ শাবান ১৪৪৫

চোখে সুপার গ্লু দিয়ে ধর্ষণের পর কান ছিঁড়ে স্বর্ণালঙ্কার লুট 

প্রকাশনার সময়: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪:৪০ | আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:৫৭

খুলনার পাইকগাছায় বাড়িতে চুরি করতে গিয়ে চোখ-মুখে সুপারগ্লু দিয়ে এক গৃহবধূকে (৪৫) সঙ্গবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ভুক্তভোগীর কান ছিড়ে দুল ও স্বর্ণালংকারসহ মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে উপজেলার রাড়ুলি গ্রামে ঘটে এ ঘটনা।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভুক্তভোগীকে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেলে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, রোববার রাতে মই দিয়ে ছাদে উঠে সিঁড়ির দরজা শাবল দিয়ে ভেঙে গৃহবধূর কক্ষে প্রবেশ করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় ওই গৃহবধূকে হাত পা বেঁধে, চোখে সুপার-গ্লু আঠা লাগিয়ে ও মুখে টেপ লাগিয়ে ধর্ষণ করা হয় এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করা হয়।

এ সময় ১ জোড়া স্বর্ণের কানের দুল এবং আনুমানিক ২ লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যা চোরের দল। পরে গৃহবধূর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন তার স্বামীকে খবর দেন এবং তাকে হাসপাতালে ভর্তি করান।

গৃহবধূর স্বামী বলেন, একতলা ছাদের উপরের সিঁড়ি ঘর খোলা ছিল। আমার স্ত্রীর চোখ ও মুখ সুপার-গ্লু আঠা দিয়ে আটকে দেয় ধর্ষকরা। আমার স্ত্রী কথা বলতে পারছেন না তাই কয়জন চোর ছিল এখনই বলা যাচ্ছে না।

রোগীর স্বজনদের অভিযোগ বরে বলেন, তাকে যৌন নির্যাতন করা হয়েছে। আমরা গাইনি ও চক্ষু বিভাগে তার চিকিৎসা করিয়েছি। বর্তমানে রোগীর জ্ঞান ফিরেছে। তবে এখন পর্যন্ত তিনি সুস্থ নন। তবে আশা করছি দ্রুত তিনি স্বাভাবিক হতে পারবেন।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার মো. কনক হোসেন বলেন, সকালে ভুক্তভোগী নারী যখন আসেন তখন তার দুই চোখের পাতা আঠা দিয়ে লাগানো ছিল। স্বর্ণালংকার নেওয়ার সময় তার কানের কিছু অংশ ছিঁড়ে গেছে।

পাইকগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুর রহমান বলেন, 'গৃহবধূকে হাত পা বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায়। ধর্ষণ হয়েছেন কিনা বা সুপার-গ্লু দিয়েছে কিনা এখনই বলা যাচ্ছে না। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বিষয়টি নিয়ে উচ্চ পর্যায়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।'

খুলনা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইদুর রহমান জানান, ইতোমধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত এবং তাদেরকে আটক করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

নয়াশতাব্দী/ডিএ/একে

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ

x
Naya Shatabdi